ব্যথামুক্ত ও স্বস্তিময় জীবনের নিশ্চয়তায়- ইলেক্ট্রো-হিলিং

বিশ্বব্যাপী স্বীকৃত আধুনিক Pulsed Electromagnetic Field (PEMF) প্রযুক্তিতে তৈরি সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য এবং নন-ইনভেসিভ ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস ব্যবহার করে আজই আপনার দীর্ঘস্থায়ী ব্যথার নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করুন।

যেসকল ব্যথায় ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস কার্যকর

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইসটি নিচে উল্লেখিত ব্যথা নিরাময়ের জন্য ব্যবহৃত প্রচলিত সমাধানগুলোর চেয়ে সম্পূর্ণ নিরাপদ, সহজ এবং অধিক কার্যকর একটি পদ্ধতি। 

কোমর ব্যথা

হাঁটুর ব্যথা

কাঁধের ব্যথা

ঘাড় ব্যথা

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস ব্যবহারকারীদের মতামত

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইসটি অসম্ভব রকম হেল্পফুল একটা ডিভাইস। আমি দুই সপ্তাহ ব্যবহার করে আলহামদুলিল্লাহ এখন বেল্ট ছাড়া চলাফেরা করতে পারি। আমার কোন সমস্যা হচ্ছে না। ডিভাইসটি এতটাই স্মুথ কাজ করে ব্যথাটাকেই ভুলিয়ে দেয়। একটা সময় আমাকে ফিল করিয়ে দিল, আমি যেন বেল্ট ছাড়া চলাফেরা করি। আমি মনে করি, কোমর ব্যথা এবং ডিস্ক প্রলাপ্স রোগীদের জন্য এই ডিভাইসটি একটি ইউনিক সমাধান।
সৈয়দা আফরোজ সুপ্তি
ডাটা এনালিস্ট ও উদ্যোক্তা
শরীরের অনুভূত ব্যথাতে জর্জরিত মানুষের আজকাল শুধু ওষুধ খেলেই হয় না, আমরা যাঁরা ভুক্তভোগী তাঁদের খুব মনে হয়, এমন কিছু যদি থাকতো বা কেউ যদি পাশে বসে হাত বুলিয়ে দিতো বা চেপে দিতো! কিন্তু সময় ও পরিস্থিতি হয়তো মিলে না অনেক সময়! আবার আমাদের জানা নাই বাসায় বসে চিকিৎসা নেওয়ার কোন ডিভাইস আছে কিনা? ফিজিওথেরাপি নিতে যাওয়ার সময় হয়তো হয় না সবার। তাই এই পরিস্থিতি ও যুগের ব্যস্ততাকে সামলে নিতে এবং ভুক্তভোগীর নিজস্ব সময়কে বাঁচাতে আমি মনে করি, ব্যথা উপশমের জন্য এই ডিভাইসটি অনেক উপকারী। আমি আরাম পেয়েছি, হাতে ও পায়ের আঙ্গুল গুলোতে এই ডিভাইস ব্যবহার করে।
মাহ্'জেবিন বীনতে কবির
প্যাচওয়ার্ক ডিজাইনার

সমস্যা ০১:

পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া এবং ওভারডোজের আশঙ্কায় ফার্মাকোলজি ভিত্তিক ব্যথা নিরাময়ের পদ্ধতিগুলো গ্রহণ করতে ভয় করছে

বিভিন্ন গবেষণায় প্রমাণিত যে, লিভার ও কিডনির ক্ষতি, ওষুধের উপর আসক্তি এবং নির্ভরশীল হয়ে পড়ার মতো বিভিন্ন ধরনের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া ফার্মাকোলজি ভিত্তিক পদ্ধতিতে রয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত ব্যক্তি ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে ডাক্তারের প্রেসক্রিপশনকৃত ডোজের বাইরে গিয়ে এই সমস্ত ওষুধগুলো গ্রহণ করছে, ফলে এই সমস্ত ওষুধের অপব্যবহারের ফলে আক্রান্ত ব্যক্তি দীর্ঘমেয়াদে বিভিন্ন জটিল পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে।

পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া এবং ওভারডোজের ভয়, ইলেক্ট্রো-হিলিং করবে জয়

PEMF প্রযুক্তিতে তৈরি ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস একটি নন-ইনভেসিভ এবং ওষুধবিহীন ব্যথা নিরাময়ের পদ্ধতি। গবেষণায় প্রমাণিত যে, ব্যথা নিরাময়ে PEMF প্রযুক্তি সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ও অধিক কার্যকর। তাই ব্যথা নিরাময়ে ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইসটি সম্পূর্ণ পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া মুক্ত এবং এতে ওভারডোজের কোন আশঙ্কা নেই।

সমস্যা ০২:

ব্যথার জন্য পেইনকিলার খেলে, ব্লাড প্রেসার বেড়ে যায়

পেইনকিলারের অতি সাধারণ পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া হলো এটি রোগীর রক্তের চাপ বাড়িয়ে দেয়। ফলে ব্যথা নিরাময়ে দীর্ঘমেয়াদী পেইনকিলারের ব্যবহারে একজন রোগী উচ্চ রক্তচাপের মত জটিল সমস্যার সম্মুখীন হয়।

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস উচ্চ রক্তচাপের ভয় থেকে মুক্তি দেবে

যেহেতু ইলেক্ট্রো-হিলিং একটি নন-ইনভেসিভ এবং কেমিক্যালমুক্ত ব্যথা উপশমকারী ডিভাইস। তাই এটি ব্যবহারে উচ্চ রক্তচাপের কোন ভয় থাকে না। কারণ এটি শুধু ব্যথায় আক্রান্ত জায়গায় সিস্টেমেটিক উপায়ে প্রভাব ফেলে, ব্যবহারকারীর সমস্ত শরীরের উপর কোন ধরনের প্রভাব বিস্তার করে না।

সমস্যা ০৩:

লিভার/কিডনির জটিলতায় ভুগছি, তাই ব্যথার জন্য পেইনকিলার নিতে পারছি না

NSAIDs ক্যাটাগরির পেইনকিলার গুলো লিভারে প্রদাহ তৈরি করে এবং কিডনিতে রক্ত চলাচলের প্রবাহকে হ্রাস করে। ফলে লিভার, কিডনির জটিলতায় ভোগা ব্যক্তির এই ধরনের পেইনকিলার লিভার, কিডনিকে দ্রুত ড্যামেজ করে ফেলতে পারে।

লিভার/কিডনির জটিলতায়, ঝামেলাহীনভাবে ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করবে ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস

ওষুধবিহীন, কেমিক্যাল মুক্ত পদ্ধতি হওয়ায় ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস লিভার, কিডনির উপর কোন ধরনের বিরূপ প্রভাব ফেলে না। ফলে লিভার, কিডনির জটিলতায় ভুগতে থাকা একজন রোগী নির্দ্বিধায় তার ব্যথা নিয়ন্ত্রণের জন্য, অধিক কার্যকর ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইসটি ব্যবহার করতে পারবে।

সমস্যা ০৪:

ব্যথা নিয়ন্ত্রণের জন্য বারবার থেরাপি সেন্টারে যেতে পারি না

দৈনন্দিন জীবনের নানা ব্যস্ততায় বা সময় স্বল্পতার জন্য, আর্থিক অসঙ্গতি অথবা লম্বা সিরিয়ালের ভয় কিংবা বাসার কাছে ভালো মানের থেরাপি সেন্টারের অভাবেই হোক অনেক সময় ব্যথা নিরাময়ের জন্য থেরাপি সেন্টারের যাওয়া হয় না। ফলে ব্যথা ব্যবস্থাপনার ধারাবাহিকতায় ব্যাঘাত হলে, ব্যথার তীব্রতা বেড়ে যায় এবং একই সাথে ব্যথার উৎস বা কারণটি জটিল আকার ধারণ করে।

বাসায় বসে, সাশ্রয়ী মূল্যের ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস ব্যবহার করে, ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করুন

গবেষণায় প্রমাণিত যে, পিইএমএফ প্রযুক্তি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া বা সংক্রমণের ঝুঁকি ছাড়াই প্রচলিত থেরাপির তুলনায় সমান বা অনেক ক্ষেত্রে আরও ভাল ফলাফল দিতে সক্ষম। এই প্রযুক্তির ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস সম্পূর্ণ নিরাপদ, নন ইনভেসিভ, নন কেমিক্যাল ও ড্রাগ-মুক্ত বা ওষুধবিহীন থেরাপি পদ্ধতি, ফলে একজন রোগী ঘরে বসে তার সুবিধাজনক সময় বা বিশ্রামের সময় এই চিকিৎসা নিতে পারে। ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস কেনা রোগীদের জন্য এককালীন বিনিয়োগ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এতে একজন রোগীর মূল্যবান সময় এবং অর্থ দুটোই সাশ্রয় হয়।

সমস্যা ০৫:

ডায়াবেটিক পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথি (Diabetic Peripheral Neuropathy) ব্যথায় সীমাহীন কষ্টকর সময় অতিবাহিত করতেছি

ডায়াবেটিক পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথি (DPN) হল এক ধরনের স্নায়ুর ক্ষতি যা ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তে উচ্চ মাত্রার শর্করার জন্য ঘটে। এটি সাধারণত পা এবং পায়ের স্নায়ুকে প্রভাবিত করে তবে হাত এবং বাহুকেও প্রভাবিত করতে পারে। ফলে আক্রান্ত জায়গায় তীক্ষ্ণ ব্যথা বা জ্বালাপোড়া হয়।

ডায়াবেটিক পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথি ব্যথায় স্বস্তি দিবে, ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস

PEMF প্রযুক্তিতে তৈরি ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস ডায়াবেটিক পেরিফেরাল নিউরোপ্যাথি ব্যথা উল্লেখযোগ্য হারে কমাতে, স্নায়ু ফাংশন এবং আক্রান্ত ব্যক্তির জীবনমান উন্নত করতে অধিক কার্যকর। এটি স্নায়ুর ক্ষতিকে বাধাগ্রস্থ করে এবং স্নায়ুর পুনর্জন্মের মাধ্যমে আক্রান্ত ব্যক্তির স্নায়ুর কার্যক্ষমতা পুনরুদ্ধার করে। 

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইস প্যাকেজে স্বাগতম!

ইলেক্ট্রো-হিলিং ডিভাইসটি ব্যথার ধরন ভেদে ব্যবহার ও ভিন্নতা এই বিষয়গুলোকে মাথায় রেখেই বিভিন্ন ধরণের সুপার সাশ্রয়ী প্যাকেজ দিচ্ছে পেইনটেক ভ্যালি। পছন্দ করুন আপনার প্যাকেজটি…

প্যাকেজ- ০১

মূল্য ১০,০০০ টাকা

প্যাকেজ- ০২

মূল্য ১২০০০ টাকা

প্যাকেজ- ০৩

মূল্য ১৩০০০ টাকা

প্যাকেজ- ০৪

মূল্য ১৪০০০ টাকা

সম্পূর্ণ প্যাকেজ- ০৫

মূল্য ১৫০০০ টাকা

কাস্টমাইজড প্যাকেজ- ০৬

মূল্য: আলোচনা সাপেক্ষে

যোগাযোগ করুন: 01975935440

বিনামূল্যে আমাদের অভিজ্ঞ প্রতিনিধির সাথে আপনার সমস্যা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিন-


    Scroll to Top